31.2 C
Chittagong
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
প্রচ্ছদপাহাড়ের খবরখুলে দেওয়া হলো কাপ্তাই বাঁধের সব গেইট

খুলে দেওয়া হলো কাপ্তাই বাঁধের সব গেইট

  নিজস্ব প্রতিবেদক

রাঙামাটির নিন্মঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় ও বাঁধকে নিরাপদ করতে কাপ্তাই বাঁধের সব গেইট খুলে দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে সবগুলো গেইট খুলে দেয়া হয়।

কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মো. এটিএম আব্দুজ্জাহের জানান, বর্তমানে হ্রদে পানির মুজদ ১০৭ দশমিক ৫৪ ফুট মিন সি লেভেল (এমএসএল) ছাড়িয়েছে। হ্রদের ধারণ ক্ষমতা থেকে দেড় এমএসএল কম। তাছাড়া বেশ কিছু উপজেলার নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় উচ্চ মহলে নির্দেশে এই পানি ছাড়া হচ্ছে।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মহিউদ্দিন বলেন, বাঁধ রক্ষা ও জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের বন্যা রোধে এ গেইটগুলো ৬ ইঞ্চি করে খুলে দেয়া হয়েছে। এখানে ১৬ গেইট দিয়ে প্রতিসেকেন্ডে ৯ হাজার কিউসেক পানি বের হয়ে যাচ্ছে। আশা করি এতে পরিস্থিতির উন্নতি হবে। ১৯৬২ সালে এই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়।

কেন্দ্রের পাঁচ ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রতি সেকেন্ড আরও ২৫ হাজার কিউসেক পানি নিষ্কাশন হচ্ছে। রাঙ্গামাটির কাপ্তাইয়ে অবস্থিত দেশের একমাত্র পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্রে পাঁচ ইউনিট হতে ২৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়। যা জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালন করা হয়।

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় কর্ণফুলী নদীকে ঘিরে কৃত্রিম এই বাঁধটি। ১৯৫৭ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের আমলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থায়নে কাপ্তাই বাঁধ নির্মাণকাজ শুরু হয়। ১৯৬২ সালে এর নির্মাণ শেষ হয়। এ বাঁধে ১৬টি জলকপাট সংযুক্ত ৭৪৫ ফুট দীর্ঘ একটি পানি নির্গমন পথ রয়েছে। ১৬টি জলকপাট প্রতি সেকেন্ডে ৫ লাখ ২৫ হাজার কিউসেক ফিট পানি নির্গমন করতে পারে।

এসইউ

সর্বশেষ